Thursday , November 26 2020
Breaking News

জানুয়ারি থেকে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরানোর পরিকল্পনা : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, ‘জানুয়ারি থেকে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরানোর পরিকল্পনা নিয়েই আমরা এগোচিছ। এখনও পর্যন্ত শিক্ষাবর্ষের সময় বাড়ানোর কোনো পরিকল্পনা এখনো নেই। পরিস্থিতি বিবেচনায় এ ধরণের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’ আজ বুধবার দুপুর ১২টায় এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান তিনি। 
তিনি আরও বলেন, মাধ্যমিক স্কুলের বার্ষিক পরীক্ষা হবে না। সবাইকে পরবর্তী শ্রেণিতে প্রমোশন দেয়া হবে। 
ভর্তি ও এসএসসি নিয়ে এখনও কোন সিদ্ধান্ত হয়নি বলেও জানান ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, পরিস্থিতি বিবেচনা করে এসব সিদ্ধান্ত পরে জাননো হবে। তিনি আর জানান, এবার পরীক্ষা ছাড়াই শিক্ষার্থীরা পরবর্তী ক্লাসে যাবেন। আগামী জানুয়ারিতে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে পাঠানোর উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করছি।শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার কোন পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী জানান, ‘আপনাদের কি মনে হচ্ছে? আমরা টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটির সাথে যোগাযোগ করছি। কিছু দেশে স্কুল খুলে দিয়েছিল, এখন বন্ধ করে দিচ্ছে। আর শীত নিয়ে সবারই শঙ্কা আছে। তিনি আরও বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকেই আমরা সংসদ টিভিতে ক্লাস নিচ্ছি। নানা প্রতিবন্ধকতায় কিছু শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাস করতে পারছেন না। যেসব শিক্ষার্থী অনলাইনে ক্লাস থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তাদের অনলাইন ক্লাসের সুবিধায় অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করছি।  
মন্ত্রী জানান, ৩০ দিনের মধ্যে শেষ করা যায় এমন সিলেবাস তৈরি করেছে পাঠ্যপুস্তক বোর্ড। এই সিলেবাসটি সব প্রতিষ্ঠান প্রধানদের কাছে পাঠানো হবে। প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষার্থীদের সেই সিলেবাসের ওপর প্রতি সপ্তাহে অ্যাসাইনমেন্ট দেয়া হবে। শিক্ষার্থীরা সেই অ্যাসাইনমেন্ট করে স্কুলে জমা দেবেন। শিক্ষার্থীরা প্রতি সপ্তাহে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দেবেন। কোন মার্কিং বা গ্রেডিং দেয়া হবে না।
উদাহরণ টেনে মন্ত্রী বলেন, ষষ্ঠ শ্রেণির কোনো শিক্ষার্থী ৭ম শ্রেণিতে উঠতে নূ্ন্যতম যতটুকু শিখনফল অর্জন করতে হয় তা নিশ্চিত করতেই এই পদ্ধতি। শিক্ষার্থীরা যে ক্লাসে এখন পড়ছে সেই শ্রেণিতে কাঙ্খিত শিখনফল অর্জনই আমাদের লক্ষ্য। 

তিনি আরও বলেন, অ্যাসাইনমেন্টগুলো থেকেই শিক্ষকরা দুর্বল শিক্ষার্থীদের চিহ্নিত করবেন। পরবর্তী অর্থবছরে তাদের বিশেষ পরিচর্যার ব্যবস্থা করবেন। 
তিনি আরও বলেন, কোন শিক্ষার্থী যদি তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে দূরে অবস্থান করে, তাহলে সে তার নিকটবর্তী প্রতিষ্ঠান থেকে অ্যাসাইন্টমেন্ট নিতে পারবেন ও জমা দিতে পারবেন। 

About marianews24

Check Also

“যখন জন্মেছি মরতে তো একদিন হবেই।করোনাভাইরাসে মরি,গুলি খেয়ে মরি,বোমা খেয়ে মরি বা অসুস্থ হয়ে মরি।এই যে কথা বলছি বলতে বলতেও মরে যেতে পারি।কাজেই মৃত্যু যখন অবধারিত মৃত্যুকে ভয় পাওয়ারতো কিছু নেই।আমি ভয় পাইনি ভয় পাবোও না।” ——-বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাছিনা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

“যখন জন্মেছি মরতে তো একদিন হবেই।করোনাভাইরাসে মরি,গুলি খেয়ে মরি,বোমা খেয়ে মরি বা অসুস্থ হয়ে মরি।এই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *