Thursday , March 4 2021
Breaking News

সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন জমজমাট নির্বাচনী প্রচারণা

সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন
জমজমাট নির্বাচনী প্রচারণা …
_______________________
নীলফামারীর প্রথম শ্রেণির সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন আগামি ১৬ জানুয়ারী। এ নির্বাচনে মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদের প্রার্থীদের মধ্যে গতকাল বুধবার (৩০ ডিসেম্বর/২০২০) প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আর প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণায় নেমে পড়েছেন পুরোদমে।

সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে সর্বমোট ১১৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতায় অবতীর্ণ হয়েছেন। এদের মধ্যে মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৮৮ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ২১ জন প্রার্থী রয়েছেন। মেয়র পদের প্রার্থীরা হলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদ্য প্রয়াত আখতার হোসেন বাদলের সহধর্মিনী রাফিকা আখতার জাহান বেবী (প্রতীক নৌকা), জাতীয় পার্টি (এ) মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব মো. সিদ্দিকুল আলম সিদ্দিক (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সমর্থিত প্রার্থী হাফেজ মাওলানা মো. নুরুল হুদা (হাতপাখা) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান পৌর মেয়র বিএনপি নেতা আমজাদ হোসেন সরকার (নারিকেল গাছ) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী রবিউল আউয়াল রবি (মোবাইল)।

এদিকে সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে সকল দ্বন্দ্ব ভুলে নৌকা মার্কার বিজয় নিশ্চিত করার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়েছে উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগ। গতকাল বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সারাদিন ভোটের মাঠ চষে বেড়াচ্ছে তারা। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে জনসংযোগ করা সহ পথসভা ও প্রধান প্রধান সড়কে নির্বাচনী মিছিল প্রদক্ষিণ অব্যাহতভাবে চালিয়ে যাচ্ছে প্রার্থীকে সাথে নিয়ে। নির্বাচনী মিছিলের নেতৃত্বে দিচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন। সকাল সাড়ে ১১ টায় দলীয় কার্যালয় থেকে বের হয়ে শহরের শহীদ ডাঃ জিকরুল হক রোড, সামসুল হক রোড ও বঙ্গবন্ধু সড়কে প্রচারণা চালানো হয়। এসময় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক মনোনয়নপ্রাপ্ত রাফিকা আখতার জাহান বেবীর (সদ্য প্রয়াত উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আখতার হোসেন বাদলের স্ত্রী) সাথে ছিলেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সানজিদা বেগম লাকী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, পৌর শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বাবু, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান লিটন, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মোস্তফা ফিরোজ সহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংঠনের প্রায় ৩ শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে নীলফামারী জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোখছেদুল মোমিন জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনা নিজে যাবে মনোনয়ন দিয়েছেন তাকে বিজয়ী করতে আমরা বদ্ধপরিকর। এজন্য ভোটারদের দ্বারে দ্বারে সরকারের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম তুলে ধরে আগামীতে আরও ব্যাপক উন্নয়নের মাধ্যমে সৈয়দপুরকে একটি মডেল নগরীতে রুপান্তরের লক্ষ্যে আমাদের প্রার্থীকে পৌরসভার মেয়র পদে ভোট দেওয়ার জন্য আহবান
জানাচ্ছি। আমরা শতভাগ আশাবাদী আওয়ামীলীগ নেতারা এভাবে ঐক্যবদ্ধ থাকলে বিজয় আমাদের হবেই।

গত বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুরে সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমাকারী প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ প্রদান করা হয়। নীলফামারী জেলা নির্বাচন অফিসার ও সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা ফজলুল করিম প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ প্রদান করেন। এ সময় সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও পৌরসভা নির্বাচনে সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. রবিউল আলম উপস্থিত ছিলেন। ওই দিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রতীক বরাদ্দ কার্যক্রম চলে।

নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায়, যে সব প্রতীকের জন্য একাধিক প্রার্থীর আবেদন ছিল তা লটারি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নিস্পত্তি করা হয়।

এদিকে, প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর পরই প্রার্থীরা প্রচার প্রচারণায় নেমে পড়েন। যে সব প্রতীকের জন্য একক প্রার্থী ছিল তারা আগেইভাগেই পছন্দের প্রতীক দিয়ে লিফলেট, পোষ্টার তৈরি করে রাখেন। আর গত বুধবার প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পরেই সন্ধ্যা থেকে আগেই তৈরি করে রাখা লিফলেট নিয়ে গণসংযোগে নেমে পড়েন প্রার্থীরা। সেই সঙ্গে নিজের ছবি ও প্রতীক সম্বলিত পোস্টার ঝুঁলানোর কাজ শুরু করেন। পাশাপাশি মাইকেও প্রচার-প্রচারণা চালাতে থাকেন সমানতালে। বেলা ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রার্থীদের প্রতীকে ভোট চেয়ে মাইকে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চলছে। ফলে গতকাল বুধবার বিকেল থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা জমজমাট হয়ে উঠে গোটা পৌরসভা এলাকা।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) থেকে সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে এ্যাডভোকেট এস. এম. ওবায়দুর রহমানকে দলীয় মনোনয়ন প্রদান করা হয়। তিনি যথারীতি নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিল করলেও গত ২৯ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে তাঁর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। এতে করে এবারে এ নির্বাচনে বিএনপির কোন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেই।

সৈয়দপুর পৌরসভা ১৫টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ৯৯ হাজার ১৮৮। এবারই প্রথম সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। সৌজন্যে – দৈনিক রংপুর।

About marianews24

Check Also

খাগড়াছড়ি জেলায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষাসেবা বিভাগের ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর এর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস খাগড়াছড়ি, বান্দরবান, রাঙামাটি, কক্সবাজার, নারায়ণগঞ্জ ও চাঁদপুর এ ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম এর শুভ উদ্ভোদন ঘোষণা করেন মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জননেতা আসাদুজ্জামান খান কামাল,এম.পি।

খাগড়াছড়ি জেলায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষাসেবা বিভাগের ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর এর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস খাগড়াছড়ি, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *